অন্তর্ধানের পরে রাশিয়া থেকে ভারতে ফেরার ইচ্ছাপ্রকাশ করে নেহরুকে চিঠি  নেতাজির ?

অন্তর্ধানের পরে রাশিয়া থেকে ভারতে ফেরার ইচ্ছাপ্রকাশ করে নেহরুকে চিঠি  নেতাজির ?

 

নেতাজির অন্তর্ধান নিয়ে কিছু গোপন ফাইল ডিক্ল্যাসিফায়েড হয়েছে | ১৯৯৭ সালে মুক্ত হওয়া এরকম একটি ফাইল বলছে‚ তাইহোকু বিমান দুর্ঘটনার আট মাস পরে গান্ধীজি বলেন‚ তিনি বিশ্বাস করেন না সুভাষ বোস নিহত | ১৯৪৬-এর এপ্রিলে ‘হরিজন‘ পত্রিকায় জাতির জনক বলেন‚ তাঁর অন্তরাত্মা বলছে‚ স্বরাজের স্বপ্ন পূর্ণ না হতে দেখে সুভাষ চলে যেতে পারেন না | কিন্তু তৎকালীন কংগ্রেসের গুরুত্বপূর্ণ নেতারা মনে করতেন‚ গান্ধীজির কাছে গোপন সূত্রে খবর ছিল | তার উপর ভিত্তি করেই গান্ধীজি অন্তরাত্মার বিশ্বাসের কথা বলেছিলেন |

গোপন সূত্র বলছে‚ জওহরলাল নেহরুর কাছে সুভাষ বোসের একটি চিঠি আসে | সেখানে সুভাষ জানিয়েছিলেন তিনি রাশিয়াতে আছেন | কিন্তু ফিরতে চান ভারতে | হতে পারে‚ চিঠি ওই সময়ে এসেছিল‚ যে সময়ে গান্ধীজি প্রকাশ্যে অন্তরাত্মা-মন্তব্য করেছিলেন | নেতাজির উত্তরসূরী‚ বোস পরিবারের সদস্য চন্দ্র বোস বলেছেন‚ এমনকী গান্ধীজি বোস পরিবারকে বলেছিলেন সুভাষের শ্রাদ্ধের উদ্যোগ না করতে | হরিজন পত্রিকায় গান্ধীজি বলেছিলেন‚ তাঁর মন বলছে‚ সুভাষ জীবিত | মহাত্মা জোরের সঙ্গে বলেছিলেন‚ “Therefore, I had nothing but my instinct to tell me that Netaji was alive. No reliance can be placed on such unsupported feeling,” |

তাহলে কি দেশনায়ক সুভাষ সত্যি তাইহোকু বিমান দুর্ঘটনায় নিহত হননি ? তিনি যে দেশে ফিরে আসার প্রয়াস করছেন বা ভবিষ্যতে করবেন সেই আভাস ছিল গান্ধীজির কাছে ? সেই প্রশ্নের উত্তর কি আদৌ আছে ফাইলবন্দি হয়ে ? আর যদি সত্যি সেই উত্তর থেকে থাকে ফাইলে‚ তাহলে এত সহজে তা সামনে আনা হল সাধারণ মানুষের ?ভারতীয় গণতন্ত্রে এত সহজে এত স্পর্শকাতর বিষয় সাধারণের ধরাছোঁয়ার নাগালে আসে নাকি ?

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *