অস্ট্রিয়ায় আজ থেকে প্রকাশ্যে নিকাব ও বোরকা পরা নিষিদ্ধ,

অস্ট্রিয়ায় আজ থেকে প্রকাশ্যে নিকাব ও বোরকা পরা নিষিদ্ধ,

 

হিজাব, নেকাব কিংবা বোরকার মাধ্যমে চেহারা ঢাকার ফলে যদি কোন মুসলিম নারীকে  শনাক্ত করা না যায় তাহলেই জরিমানা গুনতে হবে। এমন ঘোষণা করেছে অস্ট্রিয়া সরকার। আগামী ১লা অক্টোবর থেকে দেশটিতে পাকাপাকিভাবে এই আইন চালু হবে।

সংবাদমাধ্যম দি ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, নতুন এই আইনে বলা হয়, চেহারা ঢেকে যায় এমন যেকোনো ধরনের পোশাক পরে জনসম্মুখে এলে তাঁকে ১৫০ ইউরো(১ ইউরো= ৭৭ টাকা) জরিমানা করা হতে পারে। এ ছাড়া পুলিশ চাইলে সন্দেহজনক ব্যক্তির ঘটনাস্থলেই ওই ধরনের পোশাক খুলে ফেলতে হবে। এতে বাধা দিলে তাদের থানায় নিয়ে যাওয়া হবে।

অস্ট্রিয়ার সংসদ নতুন এই আইনটি চলতি বছরের মে মাসে পাস করে। আইনটি পাস হওয়ার ফলে মুসলিম নারীরা আদালত, স্কুল ও যানবাহনসহ বিভিন্ন জনাকীর্ণ স্থানে চেহারা ঢেকে চলাচল করতে পারবেন না। আইনটি পর্যটকদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।

মুখ ঢেকে যায় এমন কোনো জিনিসই জনসম্মুখে পরা যাবে না বলে জানিয়েছে দেশটির সংসদ। হিজাব, নেকাব, বোরকাসহ এর আওতায় রয়েছে সার্জিক্যাল মাস্ক, সৌখিন পোশাক এবং মুখঢাকা টুপিও।

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *