এসকে সিনহার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে একটা বানোয়াট ছুটির কাগজে সই করে নিয়ে গেছে আইন সচিব দুলাল

এসকে সিনহার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে একটা বানোয়াট ছুটির কাগজে সই করে নিয়ে গেছে আইন সচিব দুলাল,

 

প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে একটা বানোয়াট ছুটির কাগজে সই করে নিয়ে গেছে আইন সচিব দুলাল ও ডিজিএফআইর কর্মকর্তারা। এরপর থেকে বিচারপতি সিনহাকে গৃহবন্দী করে রেখেছে অবৈধ হাসিনা সরকারের খুনি দুর্নীতিবাজ পুলিশ ও গোয়েন্দারা। কিন্তু হঠাৎ সরকার এত পাগলা হয়ে এতবড় মহাঅপকর্ম কেনো করলো?

কারন খুঁজতে গিয়ে জানা গেছে, বিচারপতি সিনহার নেতৃত্বে আপীল বিভাগ বর্তমান সংসদকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছে। এরপরে এই সরকার ভেঙে দিতে হবে। এই রায় প্রকাশ হলে দেশে হানাহানি লেগে যাবে, হাজার হাজার লোক মারা পড়বে এই আশংকায় বিচারপতিরা রায় জনসমক্ষে প্রকাশের উপর নিষেধাজ্ঞা (gag order) গ্যাগ অর্ডার দিয়ে রেখেছে। ফলে এই রায় কেবল রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, ও সংশ্লিষ্ট আরো কয়েজনকে জানানো হয়েছে। রায়ে ১৫ দিনের মধ্যে কেয়ারটোকার সরকার গঠনের নির্দেশনা আছে। যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে আপোষের মাধ্যমে এই রায় বাস্তবায়নের চেষ্টা করা হচ্ছে। বিডিপলিটিকো এই রায়ের খবর জানলেও সে কারনেই প্রকাশ করা থেকে বিরত ছিল।

প্রধান বিচারপতির বাসভবনে বিশেষ আদালত বসে এই রায় দেয়া হয় আগস্ট মাসের ২২ তারিখে, পরে সেই রায়ের উপর সরকার রিভিউ পিটিশন করে। সেটাও খারিজ হয়ে যায়। সর্বশেষে এসে অক্টোবর মাসে এই রায় কার্যকর হওয়ার কথা। রায়ের খবর সেনাবাহিনীও জানে। এই রায়ের কারনেই শেখ হাসিনা দেশে আসার সাহস পাচ্ছে না।

তবে হাসিনা মনে করেছে, অস্ত্র ঠেকিয়ে রায় বন্ধ করা যাবে। আসলে তা পারবে না। বিচারপতি সুরেন্দ্রর হাতে আর কিছু নাই। তাকে অপসারন করে, এমনকি মেরে ফেললেও এই প্রকৃয়া থামবে না। বিচারপতি সুরেন্দ্র একটি গুটি মাত্র। আরও গুটি আছে। রায় বাস্তবায়ন হবে। পাল্টা খেলা হবে। এরপরে কুচক্রি অস্ত্রবাজরা সব আটক হবে।

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *