গোপালগঞ্জ, কাশিয়ানি, ওড়াকান্দি গ্রামে ছোট একটা পাখির বাচ্চাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘুদের উপর নির্মম হামলা।

গোপালগঞ্জ, কাশিয়ানি, ওড়াকান্দি গ্রামে ছোট একটা পাখির বাচ্চাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘুদের উপর নির্মম হামলা।

 

গতোকাল ০৪/০৫/২০১৮ ইং রোজ শুক্রবার, গোপালগঞ্জ কাশিয়ানী ওড়াকান্দী গ্রামে, শ্রী কাঙ্গাল দাসের বাড়িতে হামলা করে, হামলাকারিগন মোঃ ফরাদ শেখ, মোঃ মুন্না শেখ ও তার সন্ত্রাসি বাহিনীরা।

সন্ত্রাসীরা রামদা দিয়ে, শ্রী কাঙ্গাল দাসের মাথায় আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেয় এবং তার ছেলে, শ্রী হৃদয় দাসের একটি হাত ভেঙ্গে দেয়, তাছাড়া কাঙ্গাল দাসের স্ত্রীকে শারিরীকভাবে লাঞ্চিত করে ও চড়থাপ্পর দেয় সন্ত্রাসীরা। কাঙ্গাল দাস ও তার ছেলে হৃদয় দাস বর্তমান গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি অাছে।

ঘটনা স্থলে উপস্থিত ধানকাটা কৃষক ও মহিলাদের সাক্ষ্য অনুযায়ী সন্ত্রাসীরা হুমকি দিয়ে গেছে ওড়াকান্দী কোন চাড়াল (হিন্দুকে) বসবাস করতে দেবে না, এই যদি হয় আপনার এলাকার পরিস্থিতি তাহলে অন্য এলাকাগুলোতে সনাতন ধর্মি লোকেরা কতো শান্তিতে আছে সে বুঝতেই পারছেন!
সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে, তবে অাতঙ্কের মধ্যে অাছে ওড়াকান্দীর সকল সনাতন ধর্মের লোকেরা।
প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন চেয়ে বিনীত করছেন ভুক্তবোগীরা বলেন
আপনার দৃষ্টি অাকর্ষন করছি বড় কোন দাঙ্গা যাতে সৃষ্টি না হয় তার ব্যাবস্থা অভিযুক্তদের আইনের আওতায় এনে সুষ্ঠ বিচার করুন। তা নাহলে বাংলাদেশের সনাতন ধর্মীরা আগামী দিনগুলোতে নুতন কোন স্বপ্ন দেখবে বলে জানা নেই।

 

সুত্র :অনলাইন।

 

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *