চাঁদার দাবিতে নড়াইলের লোহাগড়ায় এক স্কুলশিক্ষককে গাছে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

চাঁদার দাবিতে নড়াইলের লোহাগড়ায় এক স্কুলশিক্ষককে গাছে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে লাহুড়িয়া ইউপি সদস্যসহ ছয়জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদের মধ্যে রবিউল মোল্যা (৪৫) নামের একজনকে শনিবার দুপুরে গ্রেফতার করা হয়েছে।
 
গত ২ অক্টোবর রাতে লাহুড়িয়ার মনিরুল মোল্যার বাড়ির পুকুরপাড়ে গাছে বেঁধে মনিকুমার বিশ্বাস নামের এক শিক্ষককে পেটানো হয়।

নির্যাতনের পর স্কুলশিক্ষককে চিকিৎসা করতে না দিয়ে দুর্বৃত্তরা বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখে বলেও অভিযোগ উঠেছে। পরে পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপে তাকে অসুস্থ অবস্থায় শুক্রবার রাতে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মামলার বিবরণ ও স্কুলশিক্ষকের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, লোহাগড়ার মরিচপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মনিকুমার বিশ্বাসের কাছে বেশ কিছুদিন ধরে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল লাহুড়িয়া ইউপি মেম্বার আকবর হোসেনসহ তার অনুসারীরা। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে গত ২ অক্টোবর রাতে লাহুড়িয়ার মনিরুল মোল্যার বাড়ির পুকুরপাড়ে গাছে বেঁধে মনিকুমারকে হাতুড়ি ও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। এ সময় দুর্বৃত্তদের ৫০ হাজার টাকা দেন মনিকুমারের পরিবার। পরবর্তীতে আরও সাড়ে ৪ লাখ টাকা আদায়ের জন্য ব্যাংক চেক এবং স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয় অভিযুক্তরা।

এ ব্যাপারে অভিযুক্তরা বলেন, ওই  স্কুলশিক্ষকের বিরুদ্ধে এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তাকে মারধর করা হয়নি।

নড়াইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার রাতে মনিকুমারের স্ত্রী বাদী হয়ে ছয়জনের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *