টিটু রায় থাকেন নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লায়, ফেসবুক আইডি হ্যাক করল কি-না, হিন্দুদের বাড়িতে আগুন দিয়ে চালানো হয় লুটপাট।

টিটু রায় থাকেন নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লায়, ফেসবুক আইডি হ্যাক করল কি-না, হিন্দুদের বাড়িতে আগুন দিয়ে চালানো হয় লুটপাট।

 

আগুন দিয়ে লুটপাট হয়েছে ঠাকুরবাড়ি গ্রামের হিন্দুদের বাড়িতে

ঢাকা :ফেসবুকে কথিত একটি স্ট্যাটাসের জেরে রংপুরের সদর উপজেলার পাগলাপীর ঠাকুরবাড়ি গ্রামে আগুন দিয়ে লুটপাট হয়েছে হিন্দুদের বাড়িতে। বিক্ষোভকারীদের দেওয়া আগুনে গ্রামের ৩০টি হিন্দু বাড়ির ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো এখন খোলা আকাশের নিচে। স্থানীয়রা জানান, গরু-ছাগলসহ তাদের সব মালামাল লুট হয়েছে। শুক্রবার (১০ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ঠাকুরবাড়ি গ্রামের হিন্দু পরিবারগুলো তাদের বাড়িতে ফেরেনি।

এদিকে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ জনতার সংঘর্ষ ও একজন নিহতের ঘটনায় এখন থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে ঠাকুরবাড়ি গ্রামে। এখানকার শত শত হিন্দু পরিবার এখন আছে নিরাপত্তাহীনতায়। আবারও হামলার আশঙ্কায় চরম আতঙ্কের মধ্যে আছেন তারা।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য দুলালী রানীর অভিযোগ, ‘বিকালে হঠাৎ অনেকে মিছিল নিয়ে এসে কোনও কারণ ছাড়াই বাড়িতে আগুন ধরিয়ে গরু লুট করে নিয়ে গেছে। এমনভাবে তারা হামলা চালিয়েছে যে ঘরের মালপত্র সরানোর মতো সময় পাইনি আমরা। ঘরের আসবাবপত্রসহ হাড়ি-পাতিল সব পুড়ে গেছে। রাতে থাকার কোনও জায়গা নেই, রান্না করে খাওয়ারও কোনও উপায় নেই।’

গ্রামের এই বাসিন্দার মন্তব্য— ফেসবুকে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দিয়ে যদি কেউ অপরাধ করে তার সাজা হোক। তাই বলে ঘরবাড়িতে হামলা করে আগুন ধরিয়ে মালামাল লুট করতে হবে, এটা কেমন আচরণ। আমরা এর বিচার চাই।’

ঠাকুরবাড়ি গ্রামের হিন্দু বাড়ির এমন প্রায় সব পরিবার এখন আতঙ্কে ঠাকুরবাড়ি গ্রামের হিন্দু বাড়ির এমন প্রায় সব পরিবার এখন আতঙ্কে

ঠাকুরবাড়ি গ্রামের ছেলে টিটু রায়ের যে ফেসবুক স্ট্যাটাসকে ঘিরে এত উত্তেজনা তা অনেকে শুনেছেন, কিন্তু দেখেননি। তাদেরই একজন মনমথ চন্দ্র। তার কথায়, ‘শুক্রবার জুমার নামাজের পর আশেপাশের ছয় গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ মিছিল নিয়ে গ্রামে হামলা চালায়। তারা ইট-পাটকেলও নিক্ষেপ করে। তাদের হামলার সময় আমরা প্রাণভয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাই। এ সময় তারা আমাদের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।’

টিটু রায় থাকেন নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লায়। সেখানকার একটি গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করেন। তার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে অথবা অন্য কোনোভাবে ওই স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখার ও তদন্তের দাবি জানান গ্রামবাসী ভূপেন সরকার। একইসঙ্গে যারা উস্কানি দিয়ে সাধারণ মানুষকে উত্তেজিত করেছে তাদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির দাবি জানান তিনি।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জানান, ঘটনাস্থলের আশেপাশে বিপুলসংখ্যক দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনার পর হিন্দু পাড়া ঠাকুরবাড়ি গ্রামে পুলিশি নিরাপত্তাও বেড়েছে।

রংপুরের সদর উপজেলার পাগলাপীর ঠাকুরবাড়ি গ্রামে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনারংপুরের সদর উপজেলার পাগলাপীর ঠাকুরবাড়ি গ্রামে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা

এদিকে জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, এ ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু রাফা মোহাম্মদ আরিফকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটিকে সাতদিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, বিভাগীয় কমিশনার হাসান আহাম্মেদ, জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুজ্জামান ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। তারা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের আশ্বাস দিয়েছেন। এছাড়া তাদের জন্য শুক্রবার রাতে খিচুড়ি ও থাকার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

এদিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। মহাসড়কে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছেও বলে জানান তিনি। তবে কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে আটকের খবরের সত্যতা নিশ্চিত কিংবা অস্বীকার করেননি পুলিশের কোনও কর্মকর্তা।

ঠাকুরবাড়ি গ্রামের এমন অন্তত ৩০টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছেঠাকুরবাড়ি গ্রামের এমন অন্তত ৩০টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা প্রায় চার ঘণ্টা রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কে বিক্ষোভ করেছে। এ কারণে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর পুলিশ মসহাসড়ক থেকে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিলে আবারও যানচলাচল শুরু হয়।

কোতোয়ালী থানার ওসি (অপারেশন) মোকতারুল ইসলাম জানান, শুক্রবার বিকালে হামলা ও ভাঙচুরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শত শত রাউন্ড টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। পরে তারা গুলি চালালে আহত হন ছয় জন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও ১৯ জন। তাদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের মধ্যে হামিদুল ইসলাম নামে এক তরুণ মারা গেছেন।

সুত্রু:বাংলা ট্রিভিউন

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *