ঠাকুরগাঁও সদরে পূজামণ্ডপ থেকে ফেরার পথে এক কিশোরীকে ধরে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণ,

পূজা দেখতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী,

 

 

ঠাকুরগাঁও সদরে পূজামণ্ডপ থেকে ফেরার পথে এক কিশোরীকে ধরে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩০ সেপ্টম্বর) সকালে কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন। মামলার পর আসামি ঢোলারহাট ইউনিয়নের মাধবপুর ডাঙ্গাপাড়া এলাকার তোফাজ্জলের ছেলে মনজুরুলকে (২৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন হোসেন আলী (৩২), মানিক আলী (৩৪), মামুন রহমান (২৫) ও আশরাফুল ইসলাম (২৬)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রুহিয়া থানা পুলিশের ওসি প্রদীপ কুমার রায় বলেন, শনিবার মেয়েটিকে (১৪) ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ওসি বলেন, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মেয়েটি খালাত ভাইকে সঙ্গে নিয়ে আখানগরের কেরানিপাড়া এলাকার দুর্গাপূজা মণ্ডপ দেখতে যায়।

মণ্ডপ থেকে বাড়ির ফেরার পথে ঢোলারহাট ইউনিয়নের মাধবপুর এলাকায় মনজুরুল ও তার চার বন্ধু খালাত ভাইকে মারধর করে মেয়েটির মুখ চেপে পাশের একটি লিচু বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এক সময় ওই কিশোরী সংজ্ঞা হারিয়ে ফেললে ধর্ষকরা তাকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা মেয়েটিকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

মামলার পর মনজুরুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান ওসি প্রদীপ কুমার রায়।

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *