নেহরু নয়, নেতাজিই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী,

নেহরু নয়, নেতাজিই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী,

 

ওয়েব ডেস্ক: বিকৃত হয়েছে দেশের স্বাধীনতার ইতিহাস। সঠিক বিবেচনায় নেহরু কখনওই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন না। কেননা তার আগেই দেশে স্বাধীন সরকার প্রতিষ্ঠা করেছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু। সেই হিসেবে নেতাজিই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। সত্তরতম স্বাধীনতা দিবস পেরিয়ে এসে এ দাবিই তুললেন নেতাজির পরিবারের সদস্য চন্দ্র বসু।

সদ্য সত্তর পেরিয়েছে দেশের স্বাধীনতা। প্রবীণ নয়, বরং প্রাজ্ঞ হয়েছে স্বাধীন ভারত। তবে সেখানেও উঠে এসেছে কিছু বিসদৃশ আচরণ। এবারও উলটো উঠেছে দেশের জাতীয় পতাকা। কেউবা শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে স্বাধীনতা বানানটিই সঠিক লিখতে পারেননি। সে তো গেল। কিন্তু এর মধ্যেই মাথাচাড়া দিল বড়সড় বিতর্ক।  তা উসকে দিয়েছেন নেতাজির পরিবারের সদস্য চন্দ্র বসু। জানিয়েছেন, দেশের স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছে। তাঁর মতে, দেশের স্বাধীনতার ইতিহাস সঠিকভাবে লিখিত হয়নি। সেখানে অনেক চ্যুতি আছে। ১৯৪৩ সালে এই স্বাধীন ভারতের প্রভিশনাল সরকার গঠন করেছিলেন নেতাজি। তারও বেশ কয়েক বছর পরে স্বাধীনতা এসেছে। এই নিরিখে নেতাজিই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী, নেহরু নন। কিন্তু দেশের ইতিহাস সে স্বীকৃতি দেয় না। তাঁর মতে, স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতাজি ও আইএনএ-এর অবদানকে কখনওই সঠিকভাবে তুলে ধরা হয়নি। তাঁর দাবি, বর্তমান সরকারের উচিত পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখা। এবং নেতাজির অবদানকে সঠিকভাবে তুলে ধরা।

History distorted. Netaji established provisional govt of free India in 1943.Have due respect for Nehru but he was 2nd PM: Chandra Bose pic.twitter.com/F2TwwM9cCd — ANI (@ANI) August 17, 2017

সংবাদ প্রতিদিন,

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *