প্রথম বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সৈন্যরাই ছিল আসল নায়ক, এই নির্মম ইতিহাসকে ভুলিয়ে দিয়েছে

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে ভারতীয় সৈন্যরাই ছিল আসল নায়ক, এই নির্মম ইতিহাসকে ভুলিয়ে দিয়েছে

 

আজ প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার ১০০ বছর পূর্ণ হল। এই যুদ্ধ ১৯১৮ সনে শেষ হয়েছিল। এই যুদ্ধের কথা উঠলে সবাই জার্মানি, ফ্রান্স, ব্রিটেনের মত দেশের নাম নেয়। আর ভারতের নাম তো যুদ্ধের ইতিহাস থেকে মুছেই ফেলা হয়েছে। কিন্তু আমরা আজকে আপনাকে এই যুদ্ধে ভারতের অবদান মনে করিয়ে দিতে চাই।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের শেষ হওয়া পর্যন্ত ১৪ লক্ষ ভারতীয় সৈনিক যুদ্ধ ক্ষেত্রে বীরের মত লড়াই করেছিল। অবিভক্ত পাঞ্জাব যেটা বিভক্ত হওয়ার পর হরিয়ানার জন্ম হয়েছিল, সেখান থেকে বহু যুবক ভারতের হয়ে এই যুদ্ধে লড়াই করেছিল।

১৯১৪ যখন যুদ্ধ শুরু হয়েছিল তখন থেকে ১৯২১ পর্যন্ত আনুমানিক ৭৪ হাজার ভারতীয় সৈনিক শহীদ হয়েছিল।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে আহত হওয়া ভারতীয় সৈনিক এর সংখ্যা ৩১ ডিসেম্বর ১৯১৯ পর্যন্ত ৬৪,৩৫০ ছিল।

৩১ ডিসেম্বর ১৯৯১ পর্যন্ত ৩৭৬২ জন ভারতীয় সৈনিক নিরুদ্দেশ ছিল, অথবা তাঁদের কারাবাস হয়েছিল।

এই তথ্য অথরিটি অফ দ্যা গভর্মেন্ট অফ ইন্ডিয়া এর ১৯২৩ তে প্রকাশিত করা ‘ইন্ডিয়ান কন্ট্রিবিউশন অন দ্য গ্রেট ওয়ার” থেকে নেওয়া।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় শুধু ভারতীয় সৈনিকরা তাঁদের যুদ্ধ কৌশল দেখায়নি, ভারত থেকে প্রচুর পরিমাণে যুদ্ধের সরঞ্জাম ব্রিটেনের সৈন্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। এরপরেও ব্রিটেন ভারতের কৃতজ্ঞতা স্বীকার না করে, এদেশে অত্যাচার আরও বাড়িয়ে দিয়েছিল।

ভারতীয় সৈনিকদের ওই যুদ্ধে যুক্ত হওয়ার কারণ একটাই ছিল, আর সেটা হল যুদ্ধে অংশগ্রহণ করলে তাঁদের বেতন দেওয়া হত। তাঁদের অজ্ঞাত আর অপরিচিত দেশে পাঠানো হত, সেখান থেকে বহু সৈনিক আর কোনদিনও ফিরে আসেনি।

ওই সৈনিকেরা ঠিকঠাক হাতিয়ার ও চালাতে পারত না, আর যুদ্ধের সময় তাঁদের একদিনের ও ছুটি দেওয়া হত না। তাঁদের শুধু ফাইটিং ম্যাশিন হিসেবেই ব্যাবহার করা হত। তাঁদের কোন সন্মান না দিয়েই খালি হাতেই দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। আজ প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ১০০ বছর পূর্তিতে আসুন আমরা ভারতের সেই বীর সৈনিকদের স্যালুট জানাই, যাদের ইতিহাস ভুলিয়ে দিয়েছে…

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *