বাংলাদেশে সরকার সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ মাইনরিটি ওয়াচ’  অ্যাডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ। 

বাংলাদেশে সরকার সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ মাইনরিটি ওয়াচ’  অ্যাডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ। 

মাইনরিটি ওয়াচের মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অতিথিরা

বাংলাদেশে সরকার সব ধরনের সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। নিউইয়র্কে একটি মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেছেন মানবাধিকার সংগঠন ‘বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচ’ এর সভাপতি অ্যাডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ। 

৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় জ্যামাইকায় অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে দেশ বিভাগ নিয়ে কাজ করা গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্ডিয়ান সাবকন্টিনেন্ট পার্টিশন ডকুমেন্টেশন প্রজেক্ট। 
মাইনরিটি অ্যাকটিভিস্ট শীতাংশু গুহের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রবীন্দ্র ঘোষ আরও বলেন, বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত সংখ্যালঘু মানুষের ওপর অত্যাচার বেড়ে চলেছে। পাহাড়ি আদিবাসী, কাদেরিয়া বা আহমদিয়া মুসলিম এবং হিন্দুদের নানাভাবে অত্যাচার নির্যাতনের শিকার হতে হয় দেশে। বৈষম্য করা হয় সরকারি-অসরকারি অনেক প্রতিষ্ঠান থেকে। 
রবীন্দ্র ঘোষ আরও জানান, ‘সরকার সবকিছু দেখেও না দেখার ভান করছে। অনেক থানা আছে যেখানে সংখ্যালঘুদের মামলা নেওয়া হয়নি। আমরা নিয়ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়সহ উচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করেও সরকারের কোনো সহযোগিতা পাইনি।’ 
আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া যদি অন্য কোনো সরকার ক্ষমতায় আসে তাহলে কি আপনারা সুরক্ষিত হবেন? প্রথম আলোর এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কোন সরকার কেমন সুরক্ষা দেবে আমরা জানি না। নির্যাতন হলে প্রতিবাদ তো করতেই হবে আমাদের। যে সরকারই ক্ষমতায় থাকুক না আমরা চাইব মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ১৯৭২ সালের সংবিধানে ফিরে যাবে দেশ।’ 
আয়োজক শীতাংশু গুহ জানান, তিনি ২১ সেপ্টেম্বর কানাডার বিশ্ব মাইনরিটি কনফারেন্সে এসেছিলেন। তারপর ওয়াশিংটন ডিসিতে ৫ জন কংগ্রেসম্যানসহ বেশ কয়েকজন প্রশাসনিক ব্যক্তির সঙ্গে আলোচনায় বসে বাংলাদেশের মাইনরিটি সমস্যার বর্তমান অবস্থা তুলে ধরেন। তিনি বোস্টনেও বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। নিউ ইয়র্কের এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের এবং পশ্চিম বাংলার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *