ভারতে মুসলমানের তুলনায় গরুদের নিরাপত্তা বেশি, ফের বিতর্কিত মন্তব্য শশী থারুরের ।

ভারতে মুসলমানের তুলনায় গরুদের নিরাপত্তা বেশি, ফের বিতর্কিত মন্তব্য শশী থারুরের ।

 

Hindus.news.

 কংগ্রেস সব সময়কার হিন্দুর শত্রু
যে ভাবে সমাজে আগুন লাগাচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে এরা আবার ভারত ভাগ করেই ছাড়বে!

এরা চিরকাল ক্ষমতার লোভে সমাজে আগুন লাগিয়ে এসেছে।
এবং এইভাবেই হিন্দুদের কোণঠাসা করে মুসলিমদের তোষামোদ করে ক্ষমতা দখল করেছে এবং নিজেরা চুরি চামারি লুটপাট করেছে।

অথচ পার্শবর্তী দেশগুলিকে দেখুন…বাংলাদেশ, পাকিস্তান, মায়ানমার কিংবা চিন। ওখানে কিন্তু প্রতিটি রাজনৈতিক দল ওখানকার সংখ্যাগুরু সম্প্রদায়ের স্বার্থ রক্ষা করে চলে।

রাজনৈতিক মতাদর্শ গত ভেদাভেদ থাকলেও ওরা সংখ্যাগুরু জাতির স্বার্থরক্ষার প্রশ্নে সবাই একজোট।

যেমন দেখুন বাংলাদেশ বা পাকিস্তানে মুসলিমদের স্বার্থ রক্ষার প্রশ্নে ওখানকার সব রাজনৈতিক দলগুলি কিন্তু একজোট।
মতাদর্শ গত পার্থক্য থাকলেও ওখানে কিন্তু কোনো রাজনৈতিক দলই ভোটের লোভে বা নিজেদের ক্ষুদ্র স্বার্থে সংখ্যালঘু হিন্দুদের তাঁবেদারী করে না।
বা কখনও এইভাবে হিন্দুদের উস্কে মুসলিমদের পিছনে বাঁশ দেয় না।

বরং বাংলাদেশ পাকিস্তানের সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি নিজেদের রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে সর্বদাই মুসলিম স্বার্থ রক্ষা করে চলে এবং প্রতিটি বিষয়ে মুসলিমদের পাশে গিয়ে দাঁড়ায়।
ওরা কখনোই হিন্দুদের তোষামোদ করে মুসলিমদের স্বার্থ ক্ষুণ্ন করে না।

ওদের আবার স্ট্রাটেজি হলো নানাভাবে অত্যাচার করে হিন্দু জনসংখ্যা কমিয়ে, মুসলিম আবাদী বাড়িয়ে দেশগুলিকে মুসলিম কান্ট্রি হিসাবে ধরে রাখা এবং পার্শবর্তী দেশগুলিকেও দখল করা।

এদিক থেকে দেখতে গেলে ভারতীয় রাজনীতির স্ট্রাটেজি সম্পূর্ণ ভুল।

এখানকার রাজনীতিতে বিজেপি বাদে প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিই হিন্দুদের সর্বনাশ করে মুসলিমদের বিশেষ সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দিয়ে মুসলিম তোষামোদ করে অভ্যস্ত।

এখানে সংখ্যাগুরু হিন্দুদের মেরে কোণঠাসা করে সংখ্যালঘু মুসলিমদের জামাই আদর করে লালন পালন করা হচ্ছে চিরকাল।

এখানকার মতো আত্মঘাতী রাজনৈতিক দল, আত্মঘাতী জাতি, এবং আত্মঘাতী মিডিয়া পৃথিবীর আর কোথাও নাই।

এখন সময় এসেছে এইসব মুসলিম চাটুকার, হিন্দুঘাতী দলগুলিকে এবং মিডিয়া গুলিকে উচিত শিক্ষা দেবার।

আমাদের একজোট হতেই হবে, এবং নিজের স্বজাতির স্বার্থরক্ষা করার জন্য, দেশ ও সমাজের মঙ্গলের জন্য কংগ্রেস, তৃণমূল, CPM এর মত দেশবিরোধী হিন্দুবিরোধী দলগুলিকে ডাস্টবিনে ছুঁড়ে ফেলতে হবে।

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *