মহররমের দিন প্রতিমা বিসর্জন বন্ধ থাকবে, মমতার সাফ নির্দেশ …বিষয়টিকে আপনি কিভাবে দেখছেন?

মহররমের দিন প্রতিমা বিসর্জন বন্ধ থাকবে, মমতার সাফ নির্দেশ …বিষয়টিকে আপনি কিভাবে দেখছেন?

 

মহররমের দিন প্রতিমা বিসর্জন বন্ধ থাকবে, মমতার সাফ নির্দেশ

মুসলিমদের মহররমের দিন হিন্দুদের প্রতিমা বিসর্জন বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। এর আগে ‘মহররমের জন্য একাদশিতে দুর্গাপ্রতিমার বিসর্জন কেন বন্ধ থাকবে’ এমন প্রশ্ন তুলেছিল ক্ষমতাসীন বিজেপি ও সঙ্ঘ পরিবার।

তাদের এমন প্রশ্নের জবাবে শনিবার মমতার পরিষ্কার ভাষায় জানিয়ে দেন, ‘সব ধর্মের মানুষের কথা ভেবে এবং সব দিকে শান্তি বজায় রাখতেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আমরা চাই বিসর্জন ও মহররম নির্বিঘ্নে পালিত হোক।’

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণাকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে জনস্বার্থ মামলাও দায়ের হয়েছে। মামলার শুনানিতে আবেদনকারী স্মরজিৎ চক্রবর্তী বলেন, ‌’পঞ্জিকা মতে দশমীতে বিসর্জন করা যাবে রাত ১টা ২৬ মিনিট পর্যন্ত। কোনও একটি ধর্মীয় মিছিলের জন্য অন্য একটি ধর্মের আচার-অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা জারি হলে তা নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকার ক্ষুণ্ণ করে।’ কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীথা মাত্রে এই মামলার রায়ে বলেন, ‘মুম্বাইতে গণেশ পুজোর শোভাযাত্রা ও অন্য ধর্মীয় মিছিল এক সঙ্গে রাস্তায় বের হয়।’

পঞ্জিকা মতে এবছর বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার দশমী হচ্ছে ৩০ সেপ্টেম্বর। এর একদিন পরেই ১ অক্টোবর মুসলিমদের মহররম। বিশৃঙ্খলা এড়াতে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত হয় দশমীর দিন ৩০ সেপ্টেম্বরের রাত ১০টা পর্যন্ত বিসর্জন চলবে। রাত ১০টার পর থেকে পরের দিন ১ অক্টোবর সারা দিন মহররম উপলক্ষে বিসর্জন বন্ধ থাকবে। এরপর ২ থেকে ৪ অক্টোবর যেকোন সময় প্রতিমা বিসর্জন করা যাবে।

কিন্তু বিসর্জনে কোনও রকম নিয়ন্ত্রণ মানতে নারাজ হিন্দু কট্টরপন্থী দল বিজেপি। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মত হল, ‘বিভাজনের উদ্দেশ্যেই মুখ্যমন্ত্রী (মমতা) এসব নির্দেশনা দিয়েছেন। হিন্দুদের বলছি, ‌পরম্পরা মেনে প্রতিমা বিসর্জন দেবেন। কোন মন্ত্রী বা নেতার কথা শুনবেন না।’

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *