রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের সকল লোক জনকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ

রংপুরে হিন্দুদের পুড়িয়ে মারার হুমকি দিয়ে চিঠি প্রদান। 

 

রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের সকল লোকজনকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়ে নামে-বেনামে বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে কে বা কারা চিঠি বিলি করেছে। অন্যথায় মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের মত পুড়িয়ে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে ওই উড়ো চিঠিতে। গত ৯ অক্টোবর রাতে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ভেন্ডাবাড়ীর হিন্দুপাড়া গ্রামে ওই চিঠিগুলো বিলি করা হয়। এতে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে চরম উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে।
চিঠিতে লেখা রয়েছে- ‘সকল সম্প্রদায়ের হিন্দুঁরা তাড়াতাড়ি এলাকা ছাড়ো। তা না হলে তোদেরকে রোহিঙ্গাদের মতো পুড়িয়ে মারা হবে। তাই ভালো চাইলে ৬ মাসের মধ্যে ভেন্ডাবাড়ী ছাড়ো।’ ইতি- তোমাদের যম। ভেন্ডাবাড়ী হিন্দুপাড়ার পুরোহিত চন্দন ব্যানার্জী, মণিষা অটোর মালিক মিন্টু চন্দ্র বর্মণ, বিশলাগ্রামের ব্যবসায়ী নেপাল চন্দ্র ও বিশলা বাটুলপাড়ার দোকানদার সতীষ চন্দ্রসহ বেশ কয়েকজন এই চিঠি পেয়েছেন বলে জানান গেছে।
এদিকে চিঠির খবর দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের মধ্যে চরম আতঙ্ক ও উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ১০ অক্টোবর সকালে শত শত নারী পুরুষ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলামকে সাথে নিয়ে ভেন্ডাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে গিয়ে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন। স্থানীয় সচেতন মহলের দাবি, হিন্দুপাড়া গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ নেয়াকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে দুটি পক্ষের দ্বন্দ্ব চলে আসছে। সেই দ্বন্দ্বকে আরো উস্কে দেয়ার জন্য তৃতীয় কোন পক্ষ পরিকল্পিতভাবে চিঠি বিলির কাজ করেছে।

এ ব্যাপারে ভেন্ডাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুশান্ত কুমার সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *