২ বছর ধরে ২২ লিটার রক্ত চুষে খেয়েছে কৃমি, তারপর কিশোরের কি হাল হয়েছে জানেন?

নয়াদিল্লি: ১৪ বছরের কিশোরের ক্ষুদ্রান্তে বাসা বেঁধেছিল ফিতাকৃমি ৷ ২ বছর ধরে ছেলেটির শরীর থেকে প্রায় ২২ লিটার রক্ত চুষে খেয়েছে তারা ৷ গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় দিল্লির গঙ্গারাম হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কিশোর এখন সুস্থতার পথে ৷

দীর্ঘদিন ধরে গুরুতর শারীরিক সমস্যায় ভুগছিল বছর চোদ্দোর ছেলেটি ৷ মলত্যাগের সঙ্গে রক্তপাত, রক্তাল্পতার মতো সমস্যা নিয়ে একাধিকবার ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হয়েছে তাঁকে ৷ হিমোগ্লোবিন কাউন্ট কমে দাঁড়ায় ৫.৮৫ ৷ অবস্থার এত অবনতি হয় যে রক্ত দিতে হয় বারবার ৷ ২ বছরে দিতে হয়েছে প্রায় ২২ লিটার রক্ত ৷

শরীরে রক্ত কমে যাওয়ার কারণ খুঁজতে ক্যাপসুল এন্ড্রোস্কোপির সিদ্ধান্ত নেয় তারা ৷ ক্যাপসুলের ভিতরে ছোট্ট একটি ওয়্যারলেস ক্যামেরা ভরে ছেলেটির পাকস্থলীতে পাঠানো হয় ৷ তাতে যে ছবি সামনে আসে তাতে চমকে ওঠেন চিকিৎসকেরা ৷

কিশোরের ক্ষুদ্রান্ত্রে বাসা বেঁধেছে অসংখ্যা ফিতাকৃমি ৷ সেই কৃমিগুলিই শরীর থেকে সমস্ত রক্ত চুষে নেওয়ায় বারবার অসুস্থ হয়ে পড়ছিল ছেলেটি ৷ অসুখের কারণ সামনে আসতেই শুরু হয় সঠিক চিকিৎসা ৷ চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ছেলেটি এখন সুস্থ ৷ তাঁর হিমোগ্লোবিন কাউন্ট বর্তমানে ১১ ৷

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *