৪০০০ মাদ্রাসা উর্দু শিক্ষককে চাকরি থেকে বাতিল করলেন যোগী আদিত্যনাথ, কারণ জানলে গর্বিত হবেন।

৪০০০ মাদ্রাসা উর্দু শিক্ষককে চাকরি থেকে বাতিল করলেন যোগী আদিত্যনাথ, কারণ জানলে গর্বিত হবেন।

 

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ যাকে হিন্দু ধর্মের পোস্টার বয় ও বলা হয়ে থাকে। আমাদের দেশে এমন অনেক রাজনৈতিক দল রয়েছে যারা ধর্মনিরপেক্ষতা আড়ালে মুসলিম তোষণনীতিকে গুরুত্ব দেয়। এবার সেই সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলির তোষণ নীতির ওপর জোরদার আঘাত হানলেন হিন্দুবীর যোগী আদিত্যনাথ। আজ উত্তরপ্রদেশের যোগীর সরকার এক বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলেন। বিগত সরকারের আমলে নিযুক্ত হওয়া এমন ৪০০০ জন শিক্ষককে আজকে বরখাস্ত করা হল যোগী আদিত্যনাথের সরকারের তরফ থেকে। উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের শিক্ষা সচিব এই বড়ো সিদ্ধান্তটি জানান একটি নোটিশ জারি করে। এই সিদ্ধান্তের পিছনে কারন হিসাবে রাজ্য সরকার জানান যে, তাদের রাজ্যে যথেষ্ট পরিমানে উর্দু শিক্ষক রয়েছে এই মুহুত্তে আর কোনো উর্দু শিক্ষকের প্রয়োজন নেই।

 

সেই কারনেই নিয়োগ বাতিল করা হল এই ৪০০০ জন শিক্ষকের। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, এই ৪০০০ জন শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয় ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে। এটা জারি করেছিলেন অখিলেশ যাদব। আরও জানা যাচ্ছে যে, উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে মোট ১৬০০০ শিক্ষক পদ খালি ছিল কিন্তু সেগুলির মধ্যে একটাও উর্দু শিক্ষকের পদ ছিল না। কিন্তু আগের সরকার অর্থাৎ অখিলেশ সরকার শুধুমাত্র মুসলিম তোষন করতে গিয়ে একটা বিশেষ সম্প্রদায় কে খুশি করতে গিয়ে সেই শূন্য পদের মধ্যে ৪০০০ টি উর্দু শিক্ষকের পদ যোগ করে দেয়।

যার কোনো প্রয়োজনই ছিল না। শুধুমাত্র মুসলিম তোষনের জন্য যোগী আদিত্যনাথের শপথ গ্রহনের আগেই তাদের নিয়োগ পত্র দিয়ে দেয় আগের সরকার। কিন্তু যোগী আদিত্যনাথ সরকার এই সমস্ত ব্যাপারটি জানার পর সেই সমস্ত নিয়োগ বাতিল করে দেয় এবং যে সমস্ত বিষয়ের শিক্ষক প্রয়োজন সেই বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগ করেন।

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কিছু দিন আগে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দারিভিট এই একই কারনে অগ্নিগর্ভা হয়েছিল। কারন সেই স্কুলে উর্দু শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছিল অথচ সেখানে উর্দু বিষয়টিই নেই। এর প্রতিবাদ করে প্রান হারায় সেই স্কুলেরই দুই ছাত্র।

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *