BSF জওয়ান হত্যার বদলা নিলো ভারত! ৬ টি পোষ্ট উড়িয়ে ১২ এর বেশি পাকিস্তানি রেঞ্জার্সকে মেরে ফেলা হলো।

BSF জওয়ান হত্যার বদলা নিলো ভারত! ৬ টি পোষ্ট উড়িয়ে ১২ এর বেশি পাকিস্তানি রেঞ্জার্সকে মেরে ফেলা হলো।

 

একটা বড়ো খবর জম্মুকাশ্মীরের ভারত-পাকিস্থান সীমা থেকে আসছে। BSF বলিদানি জওয়ান নরেন্দ্র কুমার হত্যার বড়ো প্রতিশোধ নিয়েছে।  BSF জওয়ানরা পাকিস্থানের উপর একটা বড়ো হামলা চালিয়ে পাকিস্থানকে জব্দ করেছে। বিগত দিনে পাকিস্থানি রেঞ্জার্সরা ভারতীয় BSF জওয়ান নরেন্দ্র কুমারকে হত্যা করেছিল। পাকিস্থানিরা নরেন্দ্র কুমারকে প্রচন্ড যন্ত্রণা দিয়েছিল, কারেন্ট দিয়েছিল, চোখ বের করে নিয়েছিল, পা কেটে দিয়েছিল এবং হত্যা করেছিল। নরেন্দ্র কুমার হরিয়ানার বাসিন্দা ছিলেন। পাকিস্তান তাদের সীমা অতিক্রম করেছিল যারপর ভারত সরকার BSF কে নির্দেশ দিয়েছিল যেভাবে হোক বদলা নিতে। BSF জওয়ানরা কাল পাকিস্থানের উপর বড়ো স্ট্রাইক করেছে।

আজ সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দিন এবং এবার সেনা নয় বরং BSF জওয়ানরা পাকিস্তানের উপর সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছে। BSF পাকিস্থানের ৬ টি পোষ্ট উড়িয়ে দিয়েছে এবং ও পোস্টে মোতায়েন থাকা ১২ জন পাকিস্তানি রেঞ্জার্স উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ১২ জন পাকিস্থানি রেঞ্জার্স এর সংখ্যা অনুমান করা হচ্ছে এটা বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। অনেক পাকিস্থানি রেঞ্জার্স আহত হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

 

প্রত্যেক পোস্টে ৪ থেকে ৫ জন রেঞ্জার্স থাকে অর্থাৎ ৬ টি পোস্টে ৩০ এর কাছাকাছি জওয়ান থাকবে এর মধ্যে ১২ জনের মৃত্যু ও কিছু আহত হওয়ার খবর এসেছে। BSF এই অপেরাশন জম্মু লাগোয়া পাকিস্থানি সীমায় করেছে। ২০১৬ এর উরি হামলার পর আজকের দিনেই ভারতীয় সেনা পাকিস্থানে ঢুকে সার্জিক্যাল স্টাইক করেছিল।

 

এবার BSF জওয়ানরা পাকিস্তানের উপর স্ট্রাইক করেছে। যেভাবে পাকিস্থানিরা নরেন্দ্র কুমারের হত্যা করেছিল তার উপযুক্ত জবাব পাকিস্থানের ১২ জনকে হত্যা করে BSF জওয়ানরা দিলো। ভারতের ১ জওয়ানকে হত্যা করলে পাকিস্থানের ১০ সেনাকে উপরে পাঠানো হবে এবিষয়ে আগেই সতর্ক করেছিল মোদী সরকার যার বহু প্রমান ভারত দিয়েছে আর এখন আরো একবার তার  বাস্তবরূপ দেখতে পেলো পাকিস্থান।

 

এই সাইটে সাধারণত আমরা নিজস্ব কোনো খবর তৈরী করি না..আমরা বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবরগুলো সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি..তাই কোনো খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।

 

 

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *