বড় হওয়ার পুজো মানে কি, পাড়া ভর্তি আলোর মাঝেও আপনি একা?

অনসূয়া দাশগুপ্ত পুজো কি শুধুই ছোটবেলার?বলা ভাল, পুজোর পাগলামো। যেটা শুধু বড় হওয়ার পরই পাগলামো মনে হয় যদিও। পায়ে ফোসকা ফেলে রাত জেগে ঠাকুর দেখা, নতুন জামার গন্ধ, ঢাকের আওয়াজে ভোরবেলা ঘুম থেকে ওঠা-এই চিরসত্যগুলো আর অতটা টানে না ..? নাকি,বাঙালির অতি প্রিয় দুর্গাপুজো বিপণনের আড়ালে মুখ ঢাকলেও আবেদনে আজও আদি অকৃত্রিম।

 

নিজে একবার চুপিচুপি আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে বলুন তো, পুজো আসার আগে আপনার একবার মনে হয় না? “উফ্ এই পুজো আসছে। আর শুরু হবে আদিখ্যেতা। একে জামা, তাকে জামা। আরে বাবা! পকেটটাও তো দেখতে হবে!’বা, ‘যাক বাবা! পুজো আসছে..ছেলের বাবা বন্ধুদের সঙ্গে ব্যস্ত, ছেলেও সারাদিন টো-টো। আমার অন্তত এই কটা দিন অখণ্ড অবসর।’ আপনার অজান্তেই দুর্গাপুজো কে সংসারের বেড়াজালে বন্দী করে ফেললেন তো!

নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা দেখা বোধহয় এখন শুধুই বিলাস। অবশ্য পুজোকেও তো অনেক ছক কষে আসতে হয় বইকী! একটু আগে এসে পড়লে বৃষ্টির সঙ্গে OVERLAP হওয়ার চাপ! তখন বাঙালিই তেড়ে ‘গাল পাড়বে’ দুগ্গা ঠাকুরকে। বছরে একবার আসবে, তাও একটু সময় দেখে আসতে পারে না!

আর ছোটবেলার পুজো? সেই নতুন জুতো পুজোর আগে বারবার ট্রায়াল দেওয়া, ৫টা দিনের কত কিছুর প্লানিং। বেপরোয়া হওয়ার। এখনও প্ল্যানিং করেন। বন্ধুদের সঙ্গেই। শুধু হাতে থাকে গ্লাস। অঞ্জলী দেওয়ার আগে ভুল করে জল খেলে প্রাণপনে ঠাকুরের কাছে মাফ চাওয়া আপনি আজ স্বঘোষিতভাবেই জলপুলিসের আন্ডারে চলে যান.. এই আপাত নিরীহ, সাদামাটা সময়গুলো হারিয়ে যাওয়াই কি পুজো? যে কিনা নিজেও বিবর্তনের শিকার। নাকি, পুজোর অনুভব আমার-আপনার মতই এখন অনেক MATURED। CHANGE IS THE ONLY CONSTANT এই মন্ত্রে বিশ্বাসী। তাই পুজোয় ঘুরতে যেতে না পারলে আজ আপনি মানিয়ে নেন। কখনও পাড়া ভর্তি আলোর মাঝেও আপনি একা, সবার দৌড়ের মাঝে আপনি একটু দাঁড়িয়ে নিতে চান। পুজোয় “ছুটি’ না পেলে ভাবেন, “বড়’ হয়ে গেছেন। অনে–ক  বড়। আর এটাই সবচে–য়ে বড় সত্যি।

Related posts:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *